নাটোরের সিংড়া উপজেলার হুলহুলিয়া গ্রাম। এই গ্রামে দুশো বছরের ইতিহাসে কখনো পুলিশ ঢোকেনি। কোন মামলা আদালয়ে যায়নি। এ গ্রামে আলাদা একটা গণতান্ত্রিক প্রথা চালু আছে। গ্রামের নিজেস্ব সংসদ ভবন আছে, আদালত আছে। ১৯৫৭ সালে গঠিত তাদের নিজেস্ব সংবিধান আছে। ১১ টা পাড়া নিয়ে এ গ্রাম গঠিত। তারা নিজেদের উন্নয়ন নিজেরা করে। নিজেস্ব সংসদীয় কমিটি আছে যারা গ্রামকে নিয়ন্ত্রণ করে। অসাধারণ সভ্য একটা গ্রাম। এ গ্রামের একটা রাজধানি আছে। এখানে বাল্য বিবাহ নেই, যৌতুক নেই।

এ গ্রামের ইতিহাসে কখনো মারামারি হয়নি। জমি নিয়ে বিরোধ বা কোন কিছু নিয়ে বিরোধ হলে তারা নিয়মতান্ত্রিক নিজেস্ব আদালতের মাধ্যমে নিস্পত্তি করে। তারা বাংলাদেশ সরকারকে আলাদা কর্ম চাপে ফেলে দেয়না। প্রতিটা জমির খাজনাপাতি ঠিক সময়ে পরিশোধ করে।। এ গ্রামে কখনো হত্যাকান্ড ঘটেনি। সবাই শিক্ষিত। তারা কেউ কেউ ফসল ফলায়, বিদেশে থাকে, অথবা চাকুরী করে। এ গ্রামে শিক্ষিতর হার ১০০%।

এটা ভাবতেই অবাক হয়ে যাচ্ছি এত সুন্দর মানুষ আছে এ দেশে! এত সুন্দর গ্রাম আছে! গ্রামের চারপাশে চলনবিল এর ভেতর দিয়েই একটা সভ্য জাতী গড়ে উঠেছে কেউ তা টের পায়নি!!!