প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে আন্তর্জাতিক অপরাধবিজ্ঞান সোসাইটির পরিচালক নির্বাচিত হয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উচ্চতর সামাজিক বিজ্ঞান গবেষণা কেন্দ্রের পরিচালক, “ডিপার্টমেন্ট অব ক্রিমিনোলজি” এর চেয়ারপার্সন অধ্যাপক ড. জিয়া রহমান। ড. জিয়া রহমান আগামী পাঁচ বছরের জন্য তিনি এই দায়িত্ব পালন করবেন। বুধবার কাতারের রাজধানী দোহায় সোসাইটির এক সম্মেলনে তিনি এ পদে নির্বাচিত হন।

অধ্যাপক জিয়া রহমান বাংলাদেশ সোসাইটি অব ক্রিমিনোলজির সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাধবিজ্ঞান বিভাগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যানও তিনি।

দোহায় অনুষ্ঠিত সম্মেলনে আন্তর্জাতিক অপরাধবিজ্ঞান সোসাইটির সভাপতি হিসেবে পুনঃনির্বাচিত হয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের অধ্যাপক এমিলিও সি ভিয়ানো এবং সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন যুক্তরাজ্যের অধ্যাপক ড. সুসান অ্যাডওয়ার্ডস। এছাড়া ‘বোর্ড অব ডিরেক্টর্স’ এর সদস্য নির্বাচিত নির্বাচিত হয়েছেন পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের ১৮ জন অপরাধবিজ্ঞানী। ড. জিয়া শুধুমাত্র একজন অপরাধবিজ্ঞানী হিসেবে বসে না থেকে কাজ করছেন সমাজে সংগঠিত অপরাধ, অপরাধের পেছনের কাহিনী, অপরাধীদের নিয়ে। চৌকষ আইনশৃঙ্খলা বাহীনীর সদস্য, সাংবাদিক, সমাজকর্মী, মানবাধিকার কর্মীদের নিয়ে ছুটে চলেছের অপরাধের কারণ নির্নয় করে অপরাধমুক্ত, সন্ত্রাসমুক্ত উন্নত সমাজব্যবস্থা তথা সুখী সমৃদ্ধ রাষ্ট গঠনের প্রত্যয় নিয়ে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়েরর একজন সফল শিক্ষকের পাশাপাশি তিনি সামলেছেন নতুন একটি বিভাগ,”ডিপার্টমেন্ট অব ক্রিমিনোলজি”। সুনাম কুড়িয়েছেন একজন প্রভোস্ট হিসেবে। শুধুমাত্র টকশোতে বলিষ্ট কন্ঠে সন্ত্রাসবাদ, সকল অন্যায়ের বিরুদ্ধে কথা বলে তিনি ক্ষান্ত নন। দেশের উন্নয়নে তিনি অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য তিনি কাজ করে চলেছেন অবিরাম । আমেরিকা, কানাডা, ইংল্যান্ড,অস্ট্রেলিয়া জার্মানির বিখ্যাত সব বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে শিক্ষা ও গবেষণার ক্ষেত্রে যৌথ সহযোগিতামূলক কর্মকান্ড বেগবান করে চলেছেন তিনি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রিমিনোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. জিয়া রহমান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগ থেকে অনার্সসহ মাস্টার্স করে কানাডার ক্যালগ্যারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে দ্বিতীয় মাস্টার্স ও পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন। শ্রমসম্পর্ক ও শ্রমিক আন্দোলন, সামাজিক-আন্দোলন, নগর গবেষণা, রাজনৈতিক সমাজবিজ্ঞান, আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদ ও অপরাধ তাঁর গবেষণার প্রধান ক্ষেত্র।

ড. জিয়া ইলেকট্রনিক মিডিয়ার টক শোর একজন নিয়মিত আলোচক। প্রিন্ট মিডিয়ায়ও তিনি কলাম লেখেন।